আমেরিকা গ্রেট শয়তান নাকি ফ্রান্স | Bahumat

আমেরিকা গ্রেট শয়তান নাকি ফ্রান্স

90435888_545640416072376_3447134171879702528_n

শিরোনাম পড়ে অনেকেই অবাক হবেন। কিন্তু আমার এই প্রবন্ধটি ব্যক্তি বিশেষ সকলের জন্য নয় বরং তাদের জন্য যারা বর্তমান বিশ্ব,ধর্ম রাজনিতি এবং ইতিহাস নিয়ে ভাবনা চিন্তা করেন।প্রথমেই বলে নেয়া ভাল যে এটা একান্তই আমার গবেষণা প্রসূত এবং একান্তই আমার মতামত। কোন ব্যক্তি বিশেষ কে আঘাত করা আমার উদ্দেশ্য নয়। বিষয়টি অনেক বড় এবং জটিল যে পরিপূর্ণ ভাবে প্রকাশ করতে হলে একটি বইয়ের আকার ধারন করবে। তাই আমি সংক্ষেপে ঊক্ত বিষয়টি আলোচনা করব। প্রথমে আমরা আলোচনা

করব কেন আমেরিকা শয়তান নয় বরং শয়তান দ্বারা পরিচালিত হয়েছিলো।ঊক্ত শয়তানটি হইতেছে ফ্রান্সের উপনিবেশ ব্রিটেন।

এখন সবাই আমাকে পাগল ভাবা শুরু করবেন। কিন্তু বাস্তবতা তাই। ঘটনাটির শুরু প্রথম ক্রুসেড হতে যা ইংল্যান্ড এর রাজা সিংহ হৃদয় রিচার্ড এর নেতৃতে সংঘঠিত হয় সুলতান সালাদিন এর সহিত। উক্ত যুদ্ধে নাসারা বাহিনী মুসলিম বাহিনীকে পরাজিত করতে পারে নাই বরং রাজা রিচার্ড সুলতান সালাদিন এর ব্যবহার এ মুগ্ধ হয়ে যুদ্ধ করতে অপরাগতা স্বীকার করেন।এতে ফ্রান্স সহ অন্য নাসারারা ক্ষ্রিপ্ত হন। ঊক্ত সময় রিচার্ড এর ছোট ভাই ইংলান্ড এর শাসন এর দ্বায়িত্যে রত ছিলেন। রিচার্ড সেক্সনদের (ইংল্যান্ড এর মুল অধিবাসী যারা ফ্রেঞ্চদের মত পশ্চিম রোমান সাম্রাজ্যের অধিবাসী। এখানে উল্লেখ্য যে ঊইকিলিক্স যে তথ্য প্রদান করে তাহা শুধু ইতিহাসের বিকৃতই নয় বরং মিথ্যা, এর প্রধান উদাহরন এবিনফ যুক্তি হচ্ছে তাদের ভাষা। ঊইকিলিক্স বলে স্যাক্সনরা হচ্ছে জার্মান অধিবাসী।এটা তারা বলে কারন তারা জার্মান জাতিকে ঘৃণা করে এবং মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চায় । কিন্তু সত্যত চাপা থাকেনা। যাইহোক জার্মানরা যে ভাষা ব্যবহার করত তা হল গথে এবং তা রোমানদের থেকে অনেক পরিবর্তিত এবং তাদেরকে বর্বর।জাতি হিসেবে দেখা হত। কিন্তু স্যাক্সনরা যে ভাষা ব্যবহার করত তা হচ্ছে রোমান বর্ণমালা হতে গ্রিহীত এবং তা পুরান ইংলিশ নামে পরিচিত এবং তাতে ২২টি বর্ণ ছিল এবং পরবর্তীতে নরম্যানরা{ফ্রান্সের অদিবাসী যে রিচার্ড এর অনুপস্থিতে তার ছোট ভাই এর সহযোগিতায় ইংল্যান্ডের আদি অধিবাসী সেক্সন্দের পরিপূর্ণ ভাবে দুর্বল করে শাসন ক্ষমতা কব্জা করে} বর্তমান রাজপরিবার তাতে আরবি বর্ণমালা হতে আরও ৪টি বর্ণ যুক্ত করে তা ইংলিশ এর বর্তমান রুপ মানে ২৬ বর্ণ বিশিষ্ট বর্ণমালা উতপত্তি ঘটায়। যাই হোক চতুর্থ ক্রুসেড যাহা শেষ ক্রুসেড হিসেবে ধরা হয়, উক্ত যুদ্ধে সুলতান সালাদিন যথেষ্ট নির্মমতার পরিচয় দেয় যাতে সে বহু রাজপুত্র সহ রাজাদের হত্যা করে। এর কারন হিসেবে সালাদিন বলেছিলেন যে তিনি আর কোন যুদ্ধের সুযোগ প্রদান করিতে অনিচ্ছুক এবং তাই তিনি মুক্তিপন এর পরিবর্তে হত্যার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। ঊক্ত ক্ষেত্রে ফরাসী রাজপরিবারের ব্যক্তিবর্গ সর্বাধিক নিহত হয় এবং সম্ভবত উক্ত কারন বশত নরম্যান বা বর্তমান রাজপরিবার কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করে। যার মাঝে আমেরিকা এবং ইলুমিনাতির ঊত্থাপন অন্যতম।আমেরিকার স্বাধীন হওয়া এবং ইলুমিনাতি নামক গুপ্ত সংগঠন এর সৃষ্টি একটি পরিকল্পিত বিষয়। এর প্রমান নিচের ছবিতেই পাওয়া যাবে১১ যা আমেরিকার ১ ডলার নোট এ দৃশ্যমান। শুধু তাই নয় জেরুজালেম দখল এর জন্য তারা তাল্মুদ নামক একটি বই এর অবতারনা করে যা তারা বাইবেল এর অংশ হিসেবে দেখায় যা সম্পূর্ণ তাদের তৈরী এবং এর মাধ্যমে তারা উক্ত গুপ্ত সংগঠনটিকে বিভ্রান্ত করে এবং যার মাধ্যমে মুসলিম ও ইয়াহুদীদের মধ্যে

যুদ্ধের সুচনা করে তাদের ধ্বংস করে জেরুজালেম এর অধিকারী হোতে চায় এবং আমেরিকাকে তারা ব্রিটিশদের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রন করারর চেস্টা করে আসছে।এখানে সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে ব্রিটিশদের একটা অংশ এ ব্যপারে কিছুই অবগত নয়।প্রশ্ন উঠতে পারে এর কি প্রমান। এর প্রমান হচ্ছে পতাকা। কেও কি দেখেছেন একটি দেশের এত পতাকা? জি হা আমি ব্রিটেন এর কথা বলছি। একমাত্র ব্রিটেনই হচ্ছে একটি দেশ যার বহু পতাকা রয়েছে।প্রশ্ন হচ্ছে কেন এত পতাকা?

আমার ধারনা অনুযায়ী এত পতাকার একটা কারন আর তা হচ্ছে পার্থক্য সৃষ্টি করা নরম্যান এবং ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড বা ওয়ালসের জনগন এর মধ্যে। এখানে প্রশ্ন উঠতে পারে কেন? এর কারন হচ্ছে রাজনীতিতে কারা অধিকার প্রাপ্ত হবে,ইলুমিনাতিতে কারা যাবে এবং সর্বোপরি

সেনাবাহিনীতে কারা জীবন দিবে। যদি আমার কথা অযুক্তি যুক্ত মনে হয় তাহলে একটি সার্ভে

করা হোক ব্রিটিশ সেনা বাহিনীতে যে গত ২০ বছরে উপসাগরীয় যুদ্ধ হতে ইরাক, আফগান যুদ্ধে যে সব সেনা নিহত হয়েছে তারা কোঁন কোন পতাকার অধিন নাকি সকল পতাকার অধিন সেনা সমান হারে নিহত হয়েছে এবং কতজন ফ্রেঞ্চ সেনা নিহত হয়েছে? ঠিক তেমনি যারা রাজনিতীতে আছে এবং গুপ্ত সংঘঠন এর সহিত যুক্ত এবং শিশু যৌনতার সাথে যুক্ত তারা কোন কোন পতাকার অধিন? সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে চার্চ অফ ইংল্যান্ড। কেথলিক থেকে প্রটেস্টান এ রুপান্তর। এর কারন হোল গুজ্যদার দ্বারা সঙ্গম। কেথলিকরা একটু মৌলবাদী ধরনের এবং তারা অনেক কিছুই করে না যা প্রটেস্টানরা করে।গুয্যদার দ্বারা সংগম শরীর এর ভর কমিয়ে ফেলে যার ফলে মহাকাশ গমন সম্ভব হয়ে উঠবে না যারা গুজ্যদার দ্বারা সঙ্গম করে। এখন কথা উঠতে পারে যুবরাজ চারলসের এর ডায়না কে বিবাহ এর কথা বা তার ভাই এর  চাইল্ড সেক্স এর ব্যপারে।রাজপরিবার রক্তের বিশুদ্ধতায় বিশ্বাসী। তাই ডায়ানা আজ নেই। দুই রাজপুত্রের ভবিষ্যৎ, ত, ভবিষ্যৎ।যাই হোক আমেরিকাকে দোষ দিয়ে লাভ নাই কারন তারা যা করেছে তা বিশ্বাস এ করেছে কিন্তু তাদের সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করা হয়েছে। যেমন করা হচ্ছে ব্রিটিশদের সাথে। মজার ব্যপার হোল ব্রিটেন নামে কন দ্বিপ এর অসস্তিত্ত ই নাই ইউকেতে।।তালমুদ নামক যে বইটি বাইবেল এর সাথে যুক্ত করার চেস্টা করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ হিন্দু ধর্মের বিভিন্ন গ্রন্থ থেকে নেয়া। ণিছের ছবি গুল দেখবেন আর

দেখবেন বাস্তবতা কি?

আমেরিকান ডলার; এখানে পীরামিড এর নিচে লেখা রোমান সংখ্যায় MDCCLXVI মানে ১৭৭৬। ঊক্ত সালে  আমেরিকান কংগ্রেস ১৩ টি স্ট্যাট নিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা করে। পিরামিড আর ঈগল পাখির বর্ণনা

পরে প্রদান করব। তার আগে আপনারা একটু ভেবেদেখুন কি হতে পারে।

89948537_549876775651113_4925879343034400768_n 89971059_229654294886296_5827572027061436416_n

 

 

 

 

 

90452782_677725256368887_9049638535262371840_n

২। নিম্নের ছবিগুল যুক্ত কিতাবটি  তুরস্কের পুলিশ কিছুদিন পুরবে উদ্ধার করে যা ৮০০ বছর পুরবের বাইবেল এর সাথে সযুক্ত ছিল। মজার বিষয় হচ্ছে ঊক্ত ছবিগুল ফ্রান্স এ ১৮৫৬ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়(source-www.veteranstoday.com)এবং হিন্দু ধর্ম গ্রন্থেই এই ধরনের চরিত্রের উল্ল্যেখ রয়েছে।আর একটি বিষয় হচ্ছে ১৮৫৭ তে সিপাহি বিপ্লব সংঘটিত হয় যাতে বহু সংখক ইংরেজ মারা যায়।

 

90435888_545640416072376_3447134171879702528_n
112 113

 

চলিবে

Loading Facebook Comments ...
Top