উহানের ল্যাবে মানুষই করোনাভাইরাস তৈরি করেছে | Bahumat

উহানের ল্যাবে মানুষই করোনাভাইরাস তৈরি করেছে

 নয়াদিল্লি, ১৯ এপ্রিল: আগেই দাবি করেছিল আমেরিকা। এবার সেই সুরেই সুর মেলালেন ফ্রান্সের নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী লুক মন্তাজিনিয়ের। দাবি করলেন, বিশ্বজুড়ে মহামারী সৃষ্টিকারী ভাইরাসটি তৈরির নেপথ্যে রয়েছে মানুষ। আরও স্পষ্ট করে বললে চীন। কারণ সেদেশের ল্যাবে এইডসের প্রতিষেধক ভ্যাকসিন তৈরি করার সময়েই মারণ কোভিড-১৯ ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। এক ফরাসি সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের মধ্যে এইচআইভির পাশাপাশি ম্যালেরিয়ার জীবাণুও রয়েছে। যা অত্যন্ত সন্দেহজনক। করোনার ক্ষেত্রে যে সমস্ত বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করা গিয়েছে, তাও প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্টি হতে পারে না। মন্তাজিনিয়েরের মতে, ২০০০ সালের শুরুর দিক থেকেই করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা চলছে উহান ন্যাশনাল বায়োসেফটি ল্যাবেরটরিতে। সম্প্রতি সেখানে দুর্ঘটনাবশত এই ভাইরাসটি বাইরে ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও গত ফেব্রুয়ারি মাসে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই ধরনের কোনও সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছিলেন উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজির ডিরেক্টর উয়ান ঝিমিং। তিনি সাফ বলেন, ‘ইনস্টিটিউটে কী ধরনের গবেষণা হয়, ভাইরাস ও অন্যান্য নমুনা কীভাবে সংরক্ষণ করা হয়, তা আমরা জানি। সেজন্য যথেষ্ট কঠোর নিয়মও মেনে চলা হয়। এই ভাইরাসটি যে কোনওভাবেই আমাদের ল্যাব থেকে ছড়ায়নি, সেবিষয়ে আমরা নিশ্চিত।’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চীনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছে, সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান, কিছু মানুষ ইচ্ছাকৃতভাবে সকলকে বিপথে চালিত করছে। মানুষ এই ভাইরাস তৈরি করেনি।
দু’দিন আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সেদেশের সংবাদমাধ্যমকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছেন, উহানের ল্যাব থেকে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ছড়িয়েছে বলে যে রিপোর্ট সামনে এসেছে, সেসম্পর্কে নিশ্চিত হতে যাবতীয় তথ্য খতিয়ে দেখা হবে। চীন গবেষণাগার থেকে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি উড়িয়ে দিলেও নিজের অবস্থানে অনড় ছিলেন ট্রাম্প। তার মধ্যেই ফরাসি বিজ্ঞানীর এহেন দাবি ঘিরে তুঙ্গে উঠেছে জল্পনা। এর মধ্যেই অবশ্য করোনার আঁতুড়ঘর উহান শহরে আর বিশেষ ভয়ের কোনও কারণ নেই বলে জানিয়েছে চীন।
Loading Facebook Comments ...
Top