রোহিঙ্গা প্রত্যপর্ণের চুক্তি দু’ বছরের মধ্যে সেরে ফেলতে চায় বাংলাদেশ | Bahumat

রোহিঙ্গা প্রত্যপর্ণের চুক্তি দু’ বছরের মধ্যে সেরে ফেলতে চায় বাংলাদেশ

bahumat.528jpg

রোহিঙ্গাদের ফেরানো নিয়ে বাংলাদেশের বিবৃতি প্রকাশের পরের দিনই উত্তপ্ত হয়ে উঠল মায়ানমার। বুধবার রাখাইন বৌদ্ধরা একটি সরকারি অফিস দখল করার চেষ্টা করলে তাঁদের উপর গুলি চালাল মায়ানমার পুলিস। ঘটনায় সাত ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছেন বলে খবর।
এদিকে, গতকাল ঢাকার তরফে জানানো হয়, আগামী দু’ বছরের মধ্যে রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে ফেরাবে বাংলাদেশ। চুক্তিমতো প্রথম পর্যায়ে বাংলাদেশের আশ্রয় শিবির থেকে এক হাজার রোহিঙ্গা মুসলিমকে ফেরানোর কথা ছিল। তাঁদের মধ্যে ১০০ জনের একটি তালিকাও তৈরি হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু বিভিন্ন কারণে এই প্রক্রিয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে বলে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সরকারের তরফে বলা হয়েছে। তবে আগামী দু’ বছরের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যপর্ণের চুক্তি সেরে ফেলতে চায় ঢাকা। এদিন মায়ানমারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মহম্মদ সুফিউর রহমানও সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, খুব শীঘ্রই বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে প্রক্রিয়া শুরু হবে। যদিও মায়ানমারের দাবি, আগামী ২৩ জানুয়ারি থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গাদের স্বাগত জানাতে তারা তৈরি। রহমান অবশ্য বলেছেন, আগামী সপ্তাহে প্রথম ধাপে প্রত্যপর্ণের চুক্তি কার্যকর করা কার্যত অসম্ভব। প্রসঙ্গত, মায়ানমারে রাখাইন প্রদেশে সেনাবাহিনীর কঠোর দমনপীড়নে বহু রোহিঙ্গা মুসলিম উদ্বাস্তু হয়েছেন। মায়ানমারের দাবি, ২০১৬ সালের অক্টোবর মাস থেকে প্রায় সাড়ে ৭ লক্ষ রোহিঙ্গা রাখাইন প্রদেশে ছেড়েছেন। অন্যদিকে ঢাকার তরফে বলা হয়েছে ২০১৬ সালের অক্টোবরের অনেক আগে থেকেই দু’ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশের আশ্রয় শিবিরে রয়েছেন।

Loading Facebook Comments ...
Top